বরখাস্ত ওসি প্রদীপের জামিন নামঞ্জুর

জামিন নামঞ্জুর বরখাস্ত ওসি প্রদীপের

দুর্নীতির মামলায় টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত। তিন কোটি ৯৫ লাখ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ওসি প্রদীপ দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

দুর্নীতির মামলায় টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত। তিন কোটি ৯৫ লাখ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ওসি প্রদীপ দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

আজ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতে আসামির অনুপস্থিতে জামিন শুনানি শুরু হয়। বিষয়টি দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর মাহমুদুল হক জানান। পরে জামিন নামঞ্জুর করে দেন বিচারক শেখ আশফাকুর রহমান।

 

এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত দুদকের মামলায় প্রদীপ কুমার দাশকে গ্রেফতার দেখানোর আদেশ দেন। গত ২৩ আগস্ট প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দীন। এ মামলায় ২৭ আগস্ট মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালতে প্রদীপ কুমার দাশকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদন জমা দেওয়া হয়।

 

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকী কারণের বিরুদ্ধে দুদকে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন ও ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার সম্পদ অর্জন করেছেন। ২০১৮ সালে প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকী কারণের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তদন্ত শুরু করে দুদক। ২০১৯ সালের ৯ এপ্রিল তাদের দুইজনকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদ বিবরণী দাখিলের নির্দেশ দেয় দুদক। ১২ মে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়-২ এ তারা পৃথক সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খান। এ ঘটনায় সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস বাদী হয়ে ওসি প্রদীপসহ নয় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কক্সবাজার আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করছে র‍্যাব।

সূত্রঃ আরটিভি অনলাইন

আরও পড়ুন