রিফাতকে রক্ষার চেষ্টা ছিলো মিন্নির অভিনয়, হত্যায় সুকৌশলে সহায়তা

রিফাতকে রক্ষার চেষ্টা ছিলো মিন্নির অভিনয়, হত্যায় সুকৌশলে সহায়তা

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত হত্যার রায়ে মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদন্ড দেয় আদালত। কি আছে সেই রায়ে কেনই বা সাক্ষী থেকে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত হলেন, তা বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে।

বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যার মূলহোতা স্ত্রী মিন্নি। ঘটনাস্থলে রিফাতকে কুপানোর সময় তাকে রক্ষার চেষ্টা ছিলো মিন্নির অভিনয়। বরং সুকৌশলে রিফাতকে হত্যায় সহায়তা করেছে সে। পূর্ণাঙ্গ রায়ে এমনটাই বলা হয়েছে।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত হত্যার রায়ে মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদন্ড দেয় আদালত। কি আছে সেই রায়ে কেনই বা সাক্ষী থেকে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত হলেন, তা বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে।

 

২৩২ পৃষ্ঠার রায়ে বলা হয়, রিফাত হত্যা পরিকল্পনার মূল উদ্যোক্তা আসামি মিন্নি। তার উদ্যোগেই আসামি নয়ন বন্ড সাড়া দেয়। এবং তারা পরামর্শ করে পরিকল্পনাটি প্রনয়ন করে। আসামী নয়ন বন্ড আসামী রিফাত ফরাজীর সাথে পরামর্শ করে চুড়ান্ত করে এবং সে অনুযায়ী, ঘটনার সময় আসামী নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজী, রাব্বী আকন, টিকটক হৃদয়, সিফাত, মো; হাসান ও মিন্নি উক্ত পরিকল্পনা মোতাবেক ভিকটিম রিফাত ফরাজীর হত্যার প্রমানিত ভূমিকা পালন করে। এবং নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী ভিকটিম রিফাত শরীফকে কোপানের সময় অভিনয় করছিলেন মিন্নি। এবং এই সম্মিলিত কোপানোর ফলেই রিফাত মারা যায়।

 

রায়ের ২১৯ পৃষ্ঠায় বলা হয়, ভিডিওতে দেখা যায় আসামী রিফাত ফারাজী, রাব্বী আকন, টিক টক হৃদয়, সিফাত, মো; হাসান ও মিন্নির ভূমিকা পাশাপাশি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ঘটনার তাহাদের ভাব ভঙ্গি হাবভাব গতিবিধি ইত্যাদি হতে দেখা যায় তাদের ভূমিকা বিচ্ছিন্ন ছিলো না। এবং এটা তাদের সক্রিয় অংশ গ্রহন ছিলো। ভিকটিম রিফাত শরীফকে হত্যা করাই ছিলো উক্ত আসামীদের অভিন্ন উদ্দ্যেশ্য। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তারা তথ্য গোপন করেন। তাদের দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে পরিকল্পনার পূর্ণ চিত্র প্রতিফলিত না হওয়ার কারন তাদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির সাক্ষ্যগত মূল্য হারায় না।

 

রায়ের ২১৭ পৃষ্ঠায় বলা হয়, এ মামলার ভিডিও ফুটেজ ২টি এই মামলার অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ ও জীবন্ত সাক্ষ্য। এসময় মিন্নির সাহায্য করার ঘটনা রক্ষা করার কৌশল মনে হলেও সে তার স্বামীকে রক্ষা করতে ঢাল না হয়ে অন্যদের দিকে নির্ভীকভাবে নিরস্ত্র করার চেষ্টা করছিলো। যাতে আসামীদের সাথে তার সম্পর্কের গভীরতা প্রকাশ পায়।

 

রোববার সকালে মিন্নিসহ ৬ জনের ডেথ রেফারেন্সের নথি পৌছাবে হাইকোর্ট।

সূত্রঃ চ্যানেল টুয়েন্টিফোর

আরও পড়ুন