অটোরিকশা ছিনতাইয়ের সময় নারীসহ ২ জনকে গণধোলাই

নরসিংদীতে এক চালককে কুপিয়ে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ছিনতাইয়ের সময় এক নারীসহ ২ ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (১০ মার্চ) রাতে সদর উপজেলার শীলমান্দী ইউনিয়নের ৫ নম্বর ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত সগির মিয়া নরসিংদীর খিলগাঁও এলাকার মোহাম্মদ জাকারিয়ার ছেলে। আটককৃত ছিনতাইকারীরা হলেন- মাধবদীর আলগী এলাকার ইউসুফ মিয়ার ছেলে মো. আল আমিন (২২) ও বালুসাইর এলাকার সাইফুল ইসলামের মেয়ে হামিদা আক্তার (২২)।

পুলিশ জানায়, ছিনতাইকারীরা সগির মিয়ার অটোরিকশা ভাড়া করে নরসিংদী থেকে মাধবদীর ফুলতলা দিকে যাচ্ছিল। নরসিংদী-মদনগঞ্জ (সাবেক রেললাইন) সড়কের ৫নং ব্রিজ এলাকায় এলে অটোরিকশা থামাতে বললে চালক তাদের কথায় রাজি না হলে ছিনতাইকারীরা সগিরকে চাপাতি দিয়ে বাম হাতে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় কয়েকজন মোটরসাইকেল যোগে নরসিংদী দিয়ে আসার সময় অটোরিকশাচালককে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে। পরে তারা ছিনতাইকারীদের পিছু নেন।

ছিনতাইকারীরা নরসিংদীর নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে তাদেরকে অটোরিকশাসহ হাতেনাতে ধরেন। এ সময় উত্তেজিত জনতা ছিনতাইকারীদের গণধোলাই দিয়ে ২ জনকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন। সে সময় ২ ছিনতাইকারীকে আটক করলেও বাকি ২ সদস্য পালিয়ে যায়।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সঞ্জয় কুমার সাহা জানান, অটোরিকশাচালকের বাম হাতে জখম ছিল। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নরসিংদী সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আতাউর রহমান জানান, যাত্রীবেশে এক অটোরিকশা ছিনতাই করার সময় ছিনতাইকারীরা অটোচালক সগিরকে চাপাতি দিয়ে বাম হাতে কুপিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে চালককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে নরসিংদীর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের সঙ্গে থাকা রক্তাক্ত অবস্থায় একটি চাপাতি জব্দ করা হয়। বাকিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

সূত্রঃ সময় নিউজ
আরও পড়ুন