সময় টিভির সাংবাদিকের বোনের লাশ উদ্ধার রাজধানীতে

রাজধানীতে সময় টিভির সাংবাদিকের বোনের লাশ উদ্ধার

খিলক্ষেত থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবদুস সামাদ জানিয়েছেন লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে।

রাজধানীর নিকুঞ্জ-২ এলাকায় বেসরকারি টেলিভিশন সময়’র ক্রীড়া সাংবাদিক হুমায়ুন কবির রোজের বোন রোফিকা রুমা ইতির (২৬) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃতের শ্বশুরবাড়ির লোকজন ‘অস্বাভাবিক’ এ মৃত্যুকে ‘আত্মহত্যা’ বলছেন। তবে রোজ বলছেন, বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্য না।

 

আজ শুক্রবার ভোরে রুমাকে ‘অচেতন’ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। রুমা নিকুঞ্জ-২ এলাকায় তার স্বামী মো. জামাল হোসেনের বাড়িতে থাকতেন। তার স্বামী একটি চকলেট ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন। এহসান হোসেন ইজাজ নামে তাদের চার বছরের একটি সন্তান আছে।

খিলক্ষেত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সন্তানকে কেন্দ্র করে রুমা আর তার স্বামী জামালের মধ্যে ঝগড়া হয়। তার শ্বশুরবাড়ি লোকজন জানিয়েছেন, ঝগড়ার একপর্যায়ে রুমা ব্যাগপত্র নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যেতে চান। তার স্বামী ও শাশুড়ি বুঝিয়ে ঘরে তাকে বাসায় রাখেন। রাতে সবাই ঘুমিয়ে পড়েন।

 

ওসি আরও জানান, জামালের বাড়ির লোকজনের ভাষ্য; ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে তার ঘরের বারান্দার গ্রিলের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েন। টের পেয়ে তার স্বামী-শাশুড়ি বারান্দায় এসে রুমাকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান। পরে সেখান থেকে তাকে নামিয়ে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

 

advertisement

ওসি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন বলেন, ‘এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। পরিবারের কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি।’

 

এদিকে রুমার ভাই ও সাংবাদিক হুমায়ুন কবির রোজ বলছেন, তার বোন আত্মহত্যা করেছেন-এ কথা তিনি কিছুতেই বিশ্বাস করেন না। রুমা মানসিকভাবে অনেক শক্ত মানুষ ছিলেন। আমাদের যে পারিবারিক শিক্ষা, তিনি নিজের জীবনকে এভাবে শেষ করে দিতে পারেন না।

 

রুমার সঙ্গে তার শাশুড়ি অনেক দুর্ব্যবহার করতেন বলেও অভিযোগ করেন রোজ। তিনি জানান, তার নিজের সামনেও রুমাকে তার শাশুড়ি দুর্ব্যবহার করেছেন। তিনি নিজের বোনকে বুঝিয়েছেন। শাশুড়িকে ‘সরি’ বলতে বলেছিলেন।

 

খিলক্ষেত থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবদুস সামাদ জানিয়েছেন লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে।

 

আরও পড়ুন