বাড়ির আঙিনা খুঁড়েই মিললো একই পরিবারের ৩ মরদেহ

বাড়ির আঙিনা খুঁড়েই মিললো একই পরিবারের ৩ মরদেহ

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাড়ির আঙিনায় মাটির নিচ থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাইকে আটক করেছে পুলিশ

 

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে নিজ বাড়ির আঙিনা থেকে একই পরিবারের তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উপজেলার জামষাইট গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। তারা হলেন- মুদি দোকানি আসাদ মিয়া, তার স্ত্রী পারভীন ও তাদের ছোট ছেলে লিয়ন। জমি নিয়ে বিরোধে তাদেরকে হত্যা করে লাশ মাটি চাপা দিয়ে রাখা হয়েছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাড়ির আঙিনায় মাটির নিচ থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাইকে আটক করেছে পুলিশ।

 

পুলিশ জানায়, জামষাইট গ্রামের মুদি দোকানি আসাদের সঙ্গে জমি নিয়ে তার ছোট ভাই লিটনের বিরোধ ছিলো। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হতো। বুধবার রাতে আসাদ, তার স্ত্রী পারভীন ও ছোট ছেলে লিয়ন বাড়ি থেকে হঠাৎ নিখোঁজ হয়।

 

আসাদের মেঝো ছেলে মোফাজ্জল বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়িতে গিয়ে বাবা, মা ও ছোট ভাইকে না পেয়ে থানায় গিয়ে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ আসাদের বাড়িতে গিয়ে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় তিনজনের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় আসাদের ছোট ভাই লিটনকে আটক করে পুলিশ।

 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জমি নিয়ে বিরোধে লিটনই তাদেরকে হত্যা করে লাশ মাটি চাপা দিয়ে রেখেছে বলে স্বীকার করেছে বলে জানান কটিয়াদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) এম এ জলিল। তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিহতের ছোট ভাই দ্বীন ইসলাম জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটায় বলে স্বীকার করে। নিহতদের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 

সূত্রঃ ভোরের ডাক

আরও পড়ুন