খালেদা জিয়ার সবশেষ অবস্থা সম্পর্কে যা বললেন চিকিৎসক

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য ও বিএনপি নেতা এ জেড এম জাহিদ হোসেন জানিয়েছেন, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মিসেস জিয়ার অবস্থা অপরিবর্তিত আছে।

“গতকালের (বৃহস্পতিবারের) মতো আজও অবস্থা স্থিতিশীল আছে। গতকাল যেমন ছিলেন আজও তাই, অপরিবর্তিত,” মিস্টার হোসেন রাত আটটার দিকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালের সামনে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের ব্রিফেংয়ের সময় এ মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া গত সাতাশে এপ্রিল থেকে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরবর্তী জটিলতার কারণে তাকে সেখানে ভর্তি করা হয়েছিলো।

এর আগে গত ১১ই এপ্রিল তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। সে সময় সিটি স্ক্যান রিপোর্টে তাঁর ফুসফুসে পাঁচ শতাংশ সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছিল।

এরপর গত ২৫শে এপ্রিল খালেদা জিয়ার দ্বিতীয়বারের মতো কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হলে সেখানেও তার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল।

পরে আরও জটিলতা দেখা দেয়ায় গত ২৭শে এপ্রিল থেকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর দলের পক্ষ থেকে অবশ্য বলা হয়েছিলো যে খালেদা জিয়ার অবস্থা ভালো, তবে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তাকে হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

যদিও পরে ৩রা মে তিনি শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তাকে করোনারি কেয়ার ইউনিট বা সিসিইউতে নেয়া হয় এবং অক্সিজেন দিতে হচ্ছে বলেও চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন।

এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, “এখনো তিনি সিসিইউতেই আছেন। মেডিকেল বোর্ড আজ জুমার নামাজের আগে এসে পরীক্ষা নিরীক্ষা করেছে। তারা আগের চিকিৎসাই অব্যাহত রেখেছে। উনার অবস্থাও গতকালের মতো আজও স্থিতিশীল আছে। উনার রোগমুক্তির জন্য দোয়া কামনা করছি”।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন এখন উনি (খালেদা জিয়া) স্বনামধন্য হাসপাতালে স্বনামধন্য চিকিৎসকদের সমন্বয়ে গঠিত বোর্ডের অধীনে আছেন।

“আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে নিতে হলে সরকারের অনুমতির পর মেডিকেল বোর্ড সিদ্ধান্ত জানাবে। এখন পর্যন্ত সরকারের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে ও মহাসচিবও অনুরোধ করেছেন। এখন এটি সরকারের বিষয় যে কবে নাগাদ কিভাবে অনুমতি দেবে”।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন