জেলে জুম মিটিং: বরখাস্ত ৪, ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কারাবন্দি ডেসটিনি-২০০০ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রফিকুল আমিনের জুম মিটিং করার ঘটনায় ৪ প্রধান কারারক্ষীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে ৭ সহকারী প্রধান কারারক্ষী ও ৬ সাধারণ কারারক্ষীর বিরুদ্ধে।

 

শুক্রবার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

তিনি জানান, ডেসটিনির রফিকুল আমিনের জুম মিটিংয়ের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৩ কারারক্ষীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা এবং ৪ কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

যারা সাময়িক বরখাস্তপ্রধান কারারক্ষী নম্বর- ১১৫৫১- ইউনুস আলী মোল্লা, প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৪৭৪- মীর বদিউজ্জামান, প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৪৪৮- আব্দুস সালাম, প্রধান কারারক্ষী নম্বর- ১১৫২৪- আনোয়ার হোসেন।

 

যাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাসহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর- ১২০১৮- জসিম উদ্দিন, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১২০০১- সাইদুল হক খান, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৬১৬- বিল্লাল হোসেন, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৯৭৫- ইব্রাহিম খলিল, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৯৮৭- বরকত উল্লাহ, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১২১২১- এনামুল হক, সহ-প্রধান কারারক্ষী নম্বর-১১৬৩২- সরোয়ার হোসেন, কারারক্ষী নম্বর-১২৫৩৬- মোজাম্মেল হক, কারারক্ষী নম্বর-১৪৯৭৪- জাহিদুল ইসলাম, কারারক্ষী নম্বর-২২১৫৯- আমির হোসেন, কারারক্ষী নম্বর-১২৩৮২- কামরুল ইসলাম, কারারক্ষী নম্বর-১৫০৩৫- শাকিল মিয়া, নবীন কারারক্ষী- আব্দুল আলীম।

 

এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা বিভাগের কারা উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি-প্রিজন) তৌহিদুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন অনুসারে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারা মহাপরিদর্শক (আইজি-প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন গণমাধ্যমকে জানান, ইউরোলজির সমস্যা ও ডায়াবেটিসসহ বেশ কিছু কারণে রফিকুলকে কারা তত্ত্বাবধানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি কয়েক দফায় জুম প্ল্যাটফর্মে অনলাইন মিটিং করেছেন এবং মোবাইলে কথা বলেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

গত বুধবার এ তথ্য ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালে দায়িত্বরত কারারক্ষীদের প্রত্যাহার এবং তদন্ত কমিটি গঠনের ব্যবস্থা নেয় কারা কর্তৃপক্ষ। রফিকুল এখনো বিএসএমএমইউতেই ভর্তি আছেন জানিয়ে মোমিনুর রহমান বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর চিকিৎসকদের সঙ্গে পরামর্শ করে তার ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দুর্নীতি দমন কমিশন ২০১২ সালের ৩১ জুলাই ডেসটিনি গ্রুপের রফিকুল আমিনের বিরুদ্ধে দুটি অর্থপাচার মামলা করে। মামলায় গত বছর আদালত রফিকুলের তিন বছরের কারাদণ্ড দেন।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন