অষ্টম দিনে রেকর্ড জরিমানা সাড়ে ৩৭ লাখ টাকা

চলমান কঠোর লকডাউনের অষ্টম দিনে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বাইরে বের হয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন এক হাজার ৭৭ জন। ৩১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয়েছে ১৬ লাখ ৭৯০ টাকা। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক ৯৩৭টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ২১ লাখ ৫৩ হাজার ৫০০ টাকা। আট দিনে রাজধানীতে মোট গ্রেপ্তার হয়েছেন ৫ হাজার ২৬৪ জন।

 

লকডাউনের অষ্টম দিনের অভিযানে এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয় ডিএমপির আটটি বিভাগ। সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম।

 

এ সময় তিনি বলেন, লকডাউনের অষ্টম দিনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির ৮টি বিভাগের রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী, তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান ও উত্তরা এলাকায় সরকারি নিয়ম অমান্য করে বাইরে বের হওয়ায় এক হাজার ৭৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। লকডাউনে সড়কে যানবাহন নিয়ে বের হওয়ায় ডিএমপি পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ট্রাফিক বিভাগ ৯৩৭টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ২১ লাখ ৫৩ হাজার ৫০০ টাকা। তিনি আরো বলেন, সরকার করোনার সংক্রমণরোধে চলমান বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে আজ অষ্টম দিনেও রাজধানীজুড়েই সক্রিয় ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

 

রাজধানীতে সরকারি বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় এবং লকডাউনের মধ্যে প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ৩১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ১৬ লাখ ৭৯০ টাকা জরিমানা করা হয়।

 

অষ্টম দিনে রাজধানীর সড়ক ছিল ব্যক্তিগত গাড়ির দখলে। কমতি ছিল না রিকশা-মোটরসাইকেলের। বেড়েছে অকারণ ঘোরাফেরাও। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বৃহস্পতিবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে সে চাপ আর পাল্লা দিয়ে বেড়েছে সাধারণের চলাচল। বাইরে বেরোনোর কারণ হিসেবে তারা দিচ্ছেন নানা যুক্তিও।

 

পাশাপাশি লকডাউনের বিধিনিষেধ মানাতে তৎপর দেখা গেছে সেনা সদস্যদেরও। সড়কে নামা প্রায় সব গাড়িকেই জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তারা। সাধারণের অবাধ চলাফেরা ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। রাজধানীর নানা চেকপোস্টে ছিল গাড়ির লম্বা লাইন।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন