মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন পক্ষ থেকে দেশবাসিকে ঈদ শুভেচ্ছা

মুসলিম উম্মার দুইটি বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। তার মধ্যে আর মাত্র কয়েক দিন পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মুসলমানদের দ্বিতীয় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। ঈদুল আজহা মানে আল্লাহ সন্তুষ্টির জন্য ত্যাগ স্বিকার করা। এই দিনে ইব্রাহিম(আঃ) আল্লাহ নির্দেশেই পশু কোরবানি দেন। এই করোবানি পশুর রক্ত,মাংশ কোন কিছুই পৌছায় না শুধু বান্দার ত্যাগ স্বীকারই আল্লাহর কাছে পৌছায়। এ পবিত্র দিনটি পালিত হতে যাচ্ছে ২১ জুলাই। এদিন পশু কোরবানির পূর্বে ৪ রাকাত ওয়াজিব নামজ আদায় করার পর আল্লাহ সন্তুষ্টির লাভে পশু(গরু,ছাগল,ভেড়া,উট,বখরি) কোরবানি করতে হবে, যারা সমর্থবান ব্যক্তি তাঁরা পশু কোরবানি দেবেন। করোবানি পূর্বে নামাজ আদায় করা ওয়াজিব। রাজধানীসহ সারা দেশে ঈদের নামাজ প্রতিবারের মত ঈদ গাঁ ময়দানে অনুষ্ঠিত হওয়া কথা থাকলেও মহামারি করোনার কারনে তা মাঠে অনুষ্ঠিত না হয়ে মসজিদে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা যায়। রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকারমে পবিত্র ঈদুল আজহার ৪ টি জামাত অনুষ্ঠিত হওয়া কথা রয়েছে,ইসলামি ফাউন্ডেশ জানিয়েছে প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরেরও জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকারম মসজিদে ঈদ ৪টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে তবে স্বস্থবিধি মেনে ও সমাজিক দূরত্ব বর্জায় রেখে। প্রথম ঈদ জামাত সকাল পৌনে ৮ টা এবং এ ভাবে আধা ঘন্টা পরপর এভাবে বাকি ৩টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা যায়। রাজধানীর দক্ষিণ সিটিতে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকারমে মহামান্য রাষ্ট্রপতি,মন্ত্রী-এমপি,ঢাকা দক্ষিণের মেয়র,কাউন্সিলরগনসহ অন্যান্য সন্মানিত ব্যক্তিবর্গরা ঈদের নামাজ আদায় করবেন। মসজিদে মুসল্লীদের ওজুর ব্যবস্থা থাকবে, নিরাপত্তার জন্য কঠোর প্রশাসনিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে,সিসি ক্যামেরা মনিটরিং সর্বক্ষণিক থাকবে।ইসলামি ফাউন্ডেশন আরো জানায়,মসজিদে সবাই মাস্ক পরিধান করে প্রবেশ করবেন। এবং রাজধানীর উত্তর সিটিতে উত্তরায় মসজিদ গুলোতে ঈদের জামাতে উত্তরের মেয়র,ঢাকা-১৮ আসনের এমপি আলহাজ্ব হাবিব হাসান,ওয়ার্ড কাউন্সিরাসহ অন্যান্য সম্মানিত ব্যক্তিবর্গরা ঈদ জামাত আদায় করবেন বলেন এবং মসজিদে মসজিদে মহামারি করোনায় থেকে পরিত্রান,অর্থনৈতিক সংকট,রাজনৈতিক সহিংসতা থেকে দেশের শান্তির জন্য বিশেষ দোয়া হবে বলে জানা যায়। এদিকে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ময়দানে বাংলাদেশে সর্ব বৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হওয়া কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারনে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক তা নিষিদ্ধ করেছে, কিশোরগঞ্জে জেলাপ্রশাসক জানান পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ হবে,তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে মসজিদে। নামাজ শেষে সামর্থবান মুসলিমরা আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য পশু কোরবানি করতে হবে। এই পশু কোরবানি সম্পর্কে রাজধানী দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নুর তাপস ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে মেয়র জনাব আতিকুল ইসলাম জানিয়েছেন আপনার আপনাদের দেয়া পশু কোরবানির বর্জ ও রক্ত নির্দিষ্টস্থানে ফেলুন যাতে পরিবেশ দুষিত না হয় সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মিরা বর্জ পরিস্কা করতে সুবিধা হয় এবং সমাজ পরিচ্ছন্ন রাখতে সিটির পরিচ্ছন্নকর্মিরা নিয়জিত থাকবে সর্বদা। উত্তরের মেয়র জনাব আতিকুর রহমান বলেন,আপনারা পশু কোরবানি করার পর যত্র-তত্র পশুর চামড়া ফেলে রাখবেন না,পশুর চামড়া জাতীয় সম্পদ,এই চামড়া শিল্প দেশের অর্থনৈতিক চাকাকে সচল রাখে, তাই আপনাদের দেয়া কোরবানির পশুর চামড়া এতিমখানা,মাদ্রাসা, লিল্লাহবোডিং এ দান করুন অথবা সরকারি নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি করুন। এদিকে পবিত্র কোরবান ঈদে মহামান্য রাষ্ট্রপতি মোঃআব্দুল হামিদ, মাননী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (সাধারন সম্পাদক,আওয়ামী লীগ),রাজধানীর দক্ষিণের মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নুর তাপস,উত্তরের মেয়র জনাব আতিকুর রহমান,ঢাকা-১৮ আসনের এমপি জনাব আলহাজ হাবিব হাসান,বিএনপির চেয়ার পার্সন বেগম খালেদা জিয়া,ফকরুল ইসলাম আলমগীর(মহাসচিব,বিএনপি)সহ অন্যান্য সম্মানিত ব্যক্তিবর্গরা দেশবাসিকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং মহামারি করোনা থেকে দেশবাসিকে পরিত্রান আশাবাদী হয়ে দেশের সব মসজিদে মসজিদে করোনা মুক্ত দোয়া হবে কাম্য করেন।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন