সৌম্য-নাঈম ঝড়ে উড়ে গেল জিম্বাবুয়ে

জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করল বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের দেয়া ১৫৩ রানের লক্ষ্যে ৭ বল বাকি থাকতেই পৌঁছে যায় সফরকারী দল। হাফ সেঞ্চুরি আসে নাইম শেখ ও সৌম্য সরকারের ব্যাট থেকে।

মাঝারি লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে, শুরু থেকেই স্ট্রোক খেলা শুরু করেন সৌম্য ও নাইম। এই দুইজনের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লেতে ৪৩ রান তুলে নেয় বাংলাদেশ।

সৌম্য ছিলেন বেশি আক্রমণাত্মক। দুটি চারের পাশাপাশি লুক জঙ্গওয়ে ও ওয়েলিংটন মাসাকাদজাকে দুটি বিশাল ছক্কা হাঁকান এই বাঁহাতি।

অন্যদিকে নাইমের ব্যাট থেকে আসে ৫টি চার। ১০ ওভার শেষে সৌম্যর রান ছিল ৩৫ বলে ৩৬ রান নিয়ে আর নাইমের নামের পাশে ছিল ২৭ বলে ৩৭।

১৩ ওভারে ওপেনিং জুটিতে শতরান তুলে ফেলেন দুই ব্যাটসম্যান। ১০২ রান করার পর ১৪তম ওভারের প্রথম বলে রানআউট হন সৌম্য।

দুইরান নিয়ে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর তৃতীয় রান নিতে যেয়ে আউট হন তিনি। তার আগে পূর্ণ করেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তার চতুর্থ ফিফটি।

অন্যপ্রান্তে মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে জুটি গড়ে ইনিংস এগিয়ে নিতে থাকেন নাইম। ৪০ বলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি।

অন্যপ্রান্তে অধিনায়ক বেশিক্ষণ টেকেননি। ১৭তম ওভারে ১৫ রান করে রানআউট হন মাহমুদুল্লাহ।

নুরুল হাসানকে নিয়ে বাকি কাজটুকু শেষ করে আসেন নাইম। ৫১ বলে ৬৬ রান করে অপরাজিত থাকেন নাইম। সোহান করেন ৮ বলে ১৬*। নিজেদের শততম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ৮ উইকেটে জিতে যায় বাংলাদেশ।

এর আগে, টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ১৯ ওভারে ১৫২ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। চাকাবভার ব্যাট থেকে আসে স্বাগতিকদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩। অভিষিক্ত ডিওন মায়ার্স করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ বলে ৩৫।

প্রথম ১০ ওভারে দুই উইকেটে ৯১ রান সংগ্রহ করলেও ম্যাচের দ্বিতীয়ভাগে উইকেটের নিয়মিত পতন ঠেকাতে পারেনি জিম্বাবুয়ে।

ফলে নির্ধারিত ওভার শেষ হওয়ার আগেই গুটিয়ে যায় তারা। মুস্তাফিজুর রহমান ৩১ রানে ৩ উইকেট নেন। শরিফুল ইসলাম ও সাইফউদ্দিন দুটি করে উইকেট নেন।

ম্যাচসেরা হয়েছেন সৌম্য সরকার। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি হচ্ছে শুক্রবার। আর রোববার শেষ ম্যাচ দিয়ে শেষ হচ্ছে দুই দলের সিরিজ।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের দেয়া ১৫৩ রানের লক্ষ্য ৮ উইকেট ও ৭ বল অক্ষত রেখেই পৌঁছে যায় সফরকারী দল। হাফ সেঞ্চুরি আসে নাইম শেখ ও সৌম্য সরকারের ব্যাট থেকে।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন