জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের ৪৬তম শাহাদৎ বার্ষিকীতে শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয় মাহফিল ও গণভোজ

কাজি আরিফ হাসানঃ

রাজধানীর উত্তর সিটিসহ সারা দেশে একযোগে পালিত হয়ে গেলো জাতীয় শোক দিবস। জাতীয় শোক দিবসের শ্লোগান”শোক থেকে শক্তি,শোক থেকে জাগরণ”।গত ১৫ আগস্ট(রোববার) জাতীয় শোক দিবসে বিমানবন্দী থানাধীন বিমানবন্দর রেলস্টেশন কারপার্কিং দোয়ামাহফিল ও গণভোজ অনুষ্ঠিত । উক্ত অয়োজনে উপ¯ি’ত ছিলেন আলহাজ মোঃহাবিব হাসান (ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য,যুগ্ন সাধারন সম্পাদক,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ),উক্ত দোয়া ও গণভোজ অনুষ্ঠানে স ালনায় ছিলেন জনাব মাকসুদুর রহমান মাসুম সম্পাদক-বিমানবন্দর থানা আ.লীগ,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ),উপ¯ি’ত ছিলেন মোঃনাজিম উদ্দিন(সহ-সভাপতি,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ),বীর মুক্তিযোদ্ধ আলহাজ্ব এস.এম তোফাজ্জল হোসেন(মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ,সাবেক চেয়ারম্যান দক্ষিণখান ইউনিয়ন),রবিউল ইসলাম রবি(কার্যকরি সদস্য,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ),মোঃফয়েজ আহমেদ(কার্যকরি সদস্য,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ),শানিন আহমেদ শাহিন(সাধারন সম্পাদক,জাতীয় শ্রমিকলীগ দক্ষিণখান থানা আ.লীগ)সহ কেন্দ্র ও থানা,মহানগর অঙ্গসংগঠনের নেত্রিবৃন্দরা প্রমূখ। উক্ত দোয়ামাহফিল ও গণভোজ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন,আলহাজ মোঃ শাহজাহান আলি মন্ডল(সভাপতি,বিমানবন্দর থানা আ.লীগ,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ) ।দোয় ও গণভোজে প্রধান অতিথি আলহাজ হাবিব হাসান(এমপি) বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন আদর্শ নেতা,এই নেতা কখনো নিজের ও তার পরিবারে জন্য চিন্তা করেনি,দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য এই মহান নেতা জেলও খেটেছেন এবং অনেক ত্যাগও স্বিকার করেছেন ,এই মহান নেতা কখনো কারোর কাছে মাথা নত করেননি,এই নেতা বিশ্বের কাছে দেশকে মর্যাদার ¯’ানে নিয়ে গেছেন। এ এই মহান নেতা বঙ্গবন্ধু ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘে এক ভাষণে বাংলা ভাষায় বক্তব্য দিয়ে দেশে মর্যাদা আরো এক ধাপ সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যান। এই মহান সাহসী নেতার নেতৃত্বেই আজ আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি ঠিকই কিš‘ ৭১ এর স্বাধীনতা অর্জনের পর ষড়যন্ত্রকারি একটি মহল এদেশের স্বাধীনতার ¯’পতি এই মহান নেতাকে বেঁচে থাকতে দেয়নি।এদেশে স্বাধীন হলেও দেশে থেকে যায় কিছু বিশ্বাস ঘাতক,বেঈমানেরা।ঐ বিশ্বাস ঘাতক-বেঈমানেরা ষড়যন্ত্র করে এই মহান নেতা,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু বন্ধুকে বাঁচতে দেয়নি,এই বেঈমানেরা ১৯৭৫ এর ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সব সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করে দেশকে কলঙ্কিত করে, শুধু তাই নয় শিশু রাসেলকেও নির্মমভাবে হত্যা করে তারা। আজ সেই ১৫ আগস্ট স্মরণী শোকের দিন আর এই শোকের দিনে মহান জাতীয় নেতাকে আমারা সারা দেশ ব্যাপি এই হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী স্বাধীনতার মহান ¯’পতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধা এবং সেই সাথে জাতীয় শোক দিবসে এই মহান নেতা ও তাঁর পরিবারবর্গের জন্য দেশবাসী পক্ষ থেকে দোয়া রইলো। এদিকে তার কণ্যা আ.লীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যখন দেশকে উন্নয়নে পথে এগিয়ে নিয়ে যা”েছন এবং দেশকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে চেষ্টা করছেন ঠিক সে সময় দেশের ভিতরে একটা কুচক্রী মহল পেছন থেকে একের পর এক যড়যন্ত্র করেই চলেছে,আর এই ষড়যন্ত্রকারি মহল যাতে কখনোই তাদের ষড়যন্ত্র সফল হতে না পারে সেদিকে দৃষ্টি রাখার জন্য দেশবাসি কাছে আহবান করেন।তিনি আরও বলেন সে সাথে আমাদের আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মাননীর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতাকে শক্তিশালি করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে সে দিকে আমাদের সুদৃষ্টি রাখতে হবে। আলোচনার পর বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের আতœার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে আলোচনাসভা সকাল ১১ টায় শুরু হয়ে ১২ টা দু¯’দের মাঝে খাবার বিতরণ মধ্য দিয়ে সমাপনী হয়।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন