নৌকাডুবির ঘটনায় ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার লইসকা বিলে নৌকাডুবির ঘটনায় ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন স্বজন হারানো ভুক্তভোগী সেলিম মিয়া। সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজনগরে তিনি মামলাটি করেন। এতে বালুবাহী ট্রলারচালকসহ ৭ জন কর্মীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। মামলায় এখন পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এছাড়াও বালুবাহী ২ নৌকা আটক করা হয়েছে। মামলার বাদি সেলিম মিয়ার মা কমলা বেগম এ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। এদিকে সকাল ৯ টার দিকে নৌকা ডুবির ঘটনায় তিন বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২২ জনে।

রাতে উদ্ধার কাজ বন্ধ থাকার পর দ্বিতীয় দিনের মত সকাল থেকে আজ আবার আবার উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিস ও বিআইডব্লিউটিএ। তবে এখনো ডুবে যাওয়া নৌকাটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে উদ্ধার কাজ দেখতে সকাল থেকে শতশত লোক ঘটনাস্থলে ভীড় জমিয়েছেন। এতে উদ্ধার কাজ কিছুটা ব্যহত হচ্ছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও বিআইডব্লিউটিএ। শনিবার সকাল ৮ টার দিকে আবার শুরু হয়েছে অভিযান।

এদিকে, এ দুর্ঘটনায় উদ্ধার ২১ মরদেহ রাতেই নিজ নিজ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মরদেহ পরিবহনের জন্য পরিবারপ্রতি ২০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে।এদিকে দুর্ঘটনার পর ধাক্কা দেয়া বালুবাহী ট্রলারের ৩ কর্মীকে আটক করা হয়। ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/এসকে
আরও পড়ুন