৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া সেই মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

ছয় ছাত্রের চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার বামনী ইউনিয়নের কাজির দিঘির পাড় আলিম মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গেছে, তাকে বামনী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কাজির দিঘির পাড়ের তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। সেখান থেকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল বলেন, ‘শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের পক্ষ থেকে থানায় মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’

এদিকে, মঞ্জুরুল কবিরকে মাদ্রাসার শিক্ষকের পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হবে বলে জানান কাজির দিঘিরপাড় আলিম মাদ্রাসার সুপার মাওলানা বরাকাত উল্লাহ।

এ বিষয়ে আজ শুক্রবার বিকেলে মঞ্জুরুল কবির বলেন, ‘আমি দাখিল শ্রেণির সব ছাত্রকে পরীক্ষার আগের দিন চুল কেটে মাদ্রাসায় আসতে বলেছি। তারা আমার কথা না শোনায় কয়েকজনের চুল কেটে দিয়েছি।’

এর আগে, গত বুধবার উপজেলার বামনী ইউনিয়নের হামছাদী কাজির দিঘিরপাড় আলিম মাদ্রাসায় দশম শ্রেণির ছয় ছাত্রের চুল কেটে দেন ওই শিক্ষক। অভিযুক্ত শিক্ষক জামায়াতে ইসলামের ইউনিয়ন আমির। ভুক্তভোগীরা মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্র। এই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এতে ছাত্র ও অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

টুয়েন্টিফোর বাংলাদেশ নিউজ/ফাহিম
আরও পড়ুন