করোনা জয় করে শুটিংয়ে ফিরলেন তমা মির্জা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী তমা মির্জা। গত মাসে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘ সময় চিকিৎসার পর অবশেষে করোনামুক্ত হয়েছেন। তবে শারীরিকভাবে খানিকটা দুর্বলতা এখনো রয়ে গেছে।

এই অবস্থাতেই অভিনয়ে ফিরেছেন এই অভিনেত্রী। ১৫ আগস্ট তার উপস্থাপনায় দেশটিভির নিয়মিত অনুষ্ঠান ‘প্রিয়তমার প্রিয়মুখ’-এর নতুন পর্ব প্রচার হয়েছে। এতে তার অতিথি ছিলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ।

তমা জানান, এটি ছিল একটি স্পেশাল পর্ব। আজ বুধবার (১৯ আগস্ট) থেকে নতুন পর্বের শুটিং করেছেন। এবারে তার অথিতি হবেন কণ্ঠশিল্পী কোনাল এবং অভিনেতা ফজলুর রহমান বাবু।

নিজের সুস্থতা ও পরিবারের সুস্থতা নিয়ে তমা বলেন, ‘আমার পুরো পরিবারই আক্রান্ত ছিল। এখন আল্লাহর রহমতে সবাই করোনা নেগেটিভ। খুব ভয়ে ও আতঙ্কে দিন কেটেছে। মনের উপর দিয়ে যে ঝড়টা গেল সেইটা কাটাতেই কাজে ফিরেছি। কাজের মধ্যে থাকলে ভালো থাকবো।

শরীর একটু দুর্বল। তবে সমস্যা হচ্ছে না। মাঝে আম্মু একটু বেশি অসুস্থ ছিলেন। আলহামদুলিল্লাহ, এখন তিনিও সুস্থ হয়েছেন।’

কাজের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বেশ কিছু সিনেমা ও নাটকের অফার আছে। কিন্তু এই মুহূর্তে আউটডোরে শুটিং করতে চাই না। পরিবার থেকে বলে দিয়েছে আপাতত খুব বেশি চাপ না নিয়ে কাজ করতে। খুব বেশি সময় বাইরে না থাকতে। তাই একটু রয়েসয়ে কাজ করতে চাই। আর স্বাস্থ্যবিধি মেনে যে কাজগুলো করা যায় সেগুলো করবো।’

আপনার কিছু অসমাপ্ত সিনেমা রয়েছে। এগুলো নিয়ে কোনো পরিকল্পনা কী আছে? তমা জবাবে বলেন, ‘ফ্রম বাংলাদেশ শিরোনামের একটি সিনেমার ডাবিং বাকি আছে। প্রযোজক শিডিউল চাইলেই এটি শেষ করবো। শাহরিয়ার নাজিম জয় ভাই পরিচালিত ‘পাপকাহিনী’ ছবিটির প্রযোজক মারা গেছেন। যদি জয় ভাই নতুন প্রযোজক না আনেন তাহলে বলতে পারছি না ছবিটির ভবিষৎ কি।

আর বাকি রইলো ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’। যে প্রযোজক তিনি করোনার আগেই ফিনান্সিয়াল প্রব্লেমে ছিলেন। তিনি যখন ডাকবেন তখন অবশ্যই শুটিংয়ে যোগ দেবো।’

সূত্রঃ জাগো নিউজ

আরও পড়ুন